সর্বশেষ সংবাদ
Home / অপরাধ / চট্টগ্রামে যাত্রীকে পিষে হত্যা করা বাসচালকের সহকারী গ্রেফতার

চট্টগ্রামে যাত্রীকে পিষে হত্যা করা বাসচালকের সহকারী গ্রেফতার

ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগ সদস্য আজাদ শেখ খুনের এক মাস পর অবশেষে হাইকোর্টের নির্দেশে মামলা নিল কোতোয়ালি থানা পুলিশ।

আজাদ শেখের স্ত্রী দিলরুবা আক্তার দিলুর দায়ের করা মামলাটি শুক্রবার রাতে মামলা হিসেবে রুজু করা হয়।

মামলায় ধর্মমন্ত্রী ছেলে ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্তকে প্রধান আসামি করে ২৫ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৮-১০ জনকে আসামি করা হয়।

মামলার বিবরণে স্ত্রী দিলরুবা আক্তার দিলু অভিযোগ করেন, মোহিত উর রহমান শান্ত, মন্তু বাবু ও রাসেল পাঠান আমার স্বামী সাজ্জাদ আলম আজাদ শেখকে হত্যার পরিকল্পনা করে।

এরপর মোহিত উর রহমান শান্ত আমার স্বামীকে ফোনে হত্যার হুমকি দিয়ে বলে, তোকে হত্যা না করে আমি ময়মনসিংহে আসব না এবং তোর বুক থেকে কলিজাটা বের করে দেখব। পরে ৩১ জুলাই বেলা আড়াইটার দিকে তাদের নির্দেশে আসামিরা পিস্তল, কাটা বন্দুক, চাপাতি, রামদা ও হকিস্টিকসহ নানা অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আমার বাড়িতে আক্রমণ করে এবং আমার স্বামীকে গালিগালাজ করতে থাকে।

এ সময় আজাদ শেখ প্রাণরক্ষার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে নাজিরবাড়ি মসজিদের কাছে পৌঁছালে মিলন ও নুরুল পিস্তুল দিয়ে গুলি করলে সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে।

তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় জুবলি কোয়ার্টার বিহারি ক্যাম্পের উল্টো দিকে গলির ভেতরে নিয়ে ফরিদ, হাকিম, সাত্তার, আব্দুল কাদের, রাজিব, রকি, ফজলু, রতন, শ্রাবণ ও মেহেদির সহযোগিতায় মিলন তার গলা কেটে তাকে হত্যা করে।

এরপর আসামি নুরুল, রানা ও ফরহাদ আমার স্বামীর বুকে চাপাতি ও ডেগার চালিয়ে তার কলিজা ও ফুসফুস বের করে নিয়ে যায়।

ঘটনার দুদিন পর ২ আগস্ট কোতোয়ালি মডেল থানায় স্ত্রী দিলরুবা আক্তার দিলু ধর্মমন্ত্রী পুত্র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্তকে প্রধান আসামি করে ২৫ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও ৮-১০ জনকে আসামি করে একটি অভিযোগ দাখিল করে।

কিন্তু মামলাটি এজাহারভুক্ত না হওয়ায় নিহত আজাদ শেখের স্ত্রী দিলরুবা আক্তার দিলুর পক্ষে হাইকোর্টে রিট করেন আইনজীবী আফিল উদ্দিন। ৩০ আগস্ট হাইকোর্ট আজাদ শেখ হত্যার অভিযোগটি এজাহার হিসেবে গ্রহণ করার নির্দেশ দেন।

এ ব্যাপারে ধর্মমন্ত্রী পুত্র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোহিত উর রহমান শান্ত তার ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়ায় যুগান্তরকে বলেন, আমাকে ও আমার পিতাসহ আমাদের রাজনৈতিক পরিবারকে হেয়প্রতিপন্ন করতেই একটি বিশেষ মহলের ইন্ধন ও নির্দেশে আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা, বানোয়াট ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলাটি করা হয়েছে।

কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি মাহমুদুল ইসলাম জানান, বাদীর অভিযোগ সম্পর্কে জটিলতা থাকায় এজাহারটি তদন্তাধীন ছিল। হাইকোর্টের নির্দেশে শুক্রবার রাতে মামলাটি রুজু হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

রাঙ্গাবালীতে জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণে টাকা আদায়

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার চরমোন্তাজ ইউনিয়নে জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণে টাকা আদায়ের অভিযোগ পাওয়া ...

Skip to toolbar