সর্বশেষ সংবাদ
Home / আন্তর্জাতিক / পাকিস্তানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ
TOPSHOT - Damaged traffic boards and telecommunication relay poles are seen after they were brought down by strong winds caused by typhoon Jebi in Osaka on September 4, 2018. - The strongest typhoon to hit Japan in 25 years made landfall on September 4, the country's weather agency said, bringing violent winds and heavy rainfall that prompted evacuation warnings. (Photo by JIJI PRESS / JIJI PRESS / AFP) / Japan OUT

পাকিস্তানে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ

পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ (মঙ্গলবার)। এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শেষ মুহূর্তে ব্যাপক দৌড়ঝাঁপ করেছে বিরোধী দলগুলো। একক প্রার্থী নির্ধারণের চেষ্টায় এ দৌড়ঝাঁপ।

প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফের (পিটিআই) প্রার্থী ড. আরিফ আলভি। আগে থেকেই পিটিআইকে চ্যালেঞ্জ জানাতে বিরোধী দলগুলোর মধ্যে একটি ঐক্য গড়ে তোলার চেষ্টা চলছিল।

তারা চাইছিল প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সব বিরোধী দলের ঐকমত্যের ভিত্তিতে তাদের একক প্রার্থী থাকবে। কিন্তু তাতে ফাটল ধরে। ফলে পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি) তাদের প্রার্থী নির্ধারণ করে এজাজ আহসানকে।

সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের দল পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএলএন) ভর করে জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের (জেইউআই-এফ) ওপর। এ দল থেকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী করা হয় এর প্রধান মাওলানা ফজলুর রহমানকে। তার ওপর কোনো আস্থা রাখতে পারেনি পিপিপি। তাই তারা আলাদা প্রার্থী দেয়।

পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনে জয়ী সংসদ সদস্যরাই ভোট দিয়ে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করবেন। ডন জানায়, বিরোধী দল বিভক্ত হয়ে প্রার্থী দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল সুবিধাজনক অবস্থানে চলে আসে।

তারা হেসেখেলে প্রেসিডেন্ট প্রার্থীকে বিজয়ী করে আনতে পারবে। এ বিষয়টি শেষ মুহূর্তে মাথায় এসেছে পাকিস্তানের বিরোধী দলগুলোর মধ্যে। ফলে তারা আবার একক প্রার্থী নির্ধারণের জন্য কোমর বেঁধে মাঠে নামে।

রোববার পিএমএলএন নেতারা পিপিপির নেতৃত্বের কাছে আহ্বান জানিয়েছে, তাদের প্রার্থী এজাজ আহসানকে প্রত্যাহার করে নিতে। একই সঙ্গে আহ্বান জানিয়েছে বিরোধীদলীয় প্রার্থী হিসেবে মাওলানা ফজলুর রহমানকে সমর্থন দিতে।

সোমবার ইসলামাবাদে জবাবদিহিতা বিষয়ক আদালতে হাজির হন নওয়াজ শরিফ। এ সময় তার সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন পিপিপির কিছু নেতা। ওদিকে রোববারই মডেল টাউনে অবস্থিত পিএমএলএনের বর্তমান সভাপতি শাহবাজ শরিফের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন মাওলানা ফজলুর রহমান। পিপিপির নেতাদেরকে তাদের প্রার্থী প্রত্যাহার করে নেয়ার জন্য অনুরোধ করতে তিনি আহ্বান জানান শাহবাজকে। ফজলুর রহমান বলেন, ‘পিপিপির প্রার্থী এজাজ আহমেদকে প্রত্যাহার করে না নেয়ার অর্থ হল পিটিআইয়ের প্রার্থী ড. আরিফ আলভিকে পথ ছেড়ে দেয়া, যেমনটা প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনে করেছিল পিপিপি। বিষয়টি পিপিপিও ভালো করে জানে।’

পিপিপির একজন নেতা বলেন, আমাদেরকে পরিপক্বতা প্রদর্শন করতে হবে। আসিফ আলী জারদারি আশাবাদী যে, দিনশেষে বিরোধী দলগুলোর একক প্রার্থী হবেন এজাজ আহসান। তিনি আরও জানান, এখনও পিএমএলএন ও পিপিপি নেতারা এক হয়ে একজন যৌথ প্রার্থী দেয়ার সুযোগ আছে। তার কথায়, এ দুটি দল এখনও সমঝোতায় পৌঁছার আশা ছাড়েনি। ওদিকে মাওলানা ফজলুর রহমানের বিষয়ে পিপিপি যে একমত নয় তাতে কিছুটা হতাশ পিএমএলএন। নওয়াজ শরিফ ও শাহবাজ শরিফ মনে করেন, পিপিপি নেতৃত্বের সঙ্গে চমৎকার সম্পর্ক রয়েছে মাওলানা ফজলুর রহমানের। তাই আসিফ আলি জারদারি প্রেসিডেন্ট পদে তাকে সমর্থন করবেন বলে তারা বিশ্বাস করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

অবশেষে মি টু ঝড়ে মন্ত্রিত্ব ছাড়লেন এমজে আকবর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রটে যাওয়া খবর অবশেষে সত্য হল। ৩ দিন আগের ...

Skip to toolbar