সর্বশেষ সংবাদ
Home / সারাদেশ / চিকিৎসা শেষে বাসায় ফেরার পথে দুই সন্তানসহ বাবা নিহত

চিকিৎসা শেষে বাসায় ফেরার পথে দুই সন্তানসহ বাবা নিহত

পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলায় চিকিৎসা শেষে বাসায় ফেরার পথে বাসের ধাক্কায় মোটরসাইকেল আরোহী দুই সন্তানসহ বাবা নিহত হয়েছেন।

এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন নিহত ওই শিশুদের মা। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শনিবার রাতে পঞ্চগড়-ঢাকা মহাসড়কের ধনীপাড়া এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- দেবীগঞ্জ উপজেলার পামুলি ইউনিয়নের কাউনি কুয়াপাড়া গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে আখতারুজ্জামান আকতার (৫০), তার দুই সন্তান আফছা ইবনাত আদিয়া (৬) ও শিশুপুত্র আব্দুল্ল্যাহ (৬ মাস)। এ সময় আখতারুজ্জামান আকতারের স্ত্রী তানিয়া আক্তার (৩৫) গুরুতর আহত হন। তাকে পঞ্চগড় সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

বোদা থানার ওসি এ কে এম নুরুল ইসলাম সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে জানান, একটি মোটরসাইকেলে দুই সন্তান ও স্ত্রীসহ আখতারুজ্জামান আকতার রাত ৯ টার দিকে ছোট ছেলের চিকিৎসা শেষে ঠাকুরগাঁও থেকে মোটরসাইকেলযোগে পঞ্চগড় শহরের ভাড়া বাড়িতে ফিরছিলেন।

তিনি জানান, পঞ্চগড়-ঠাকুরগাঁও মহাসড়কের বোদা উপজেলার ধনীপাড়া এলাকায় পৌঁছালে পঞ্চগড় থেকে ঢাকাগামী তানজিলা পরিবহন নামের একটি নৈশ কোচ তাদের মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই আকতারুজ্জামান আকতার মারা যান। স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত আখতারের স্ত্রী ও দুই সন্তানকে উদ্ধার করে পঞ্চগড় সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে যান।

ওসি এ কে এম নুরুল ইসলাম জানান, হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা দুই সন্তানকে মৃত ঘোষণা করেন। মা তানিয়া আক্তারকে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ স্থানীয়রা দুর্ঘটনার পরই মহাসড়ক অবরোধ করলে দু’পাশে শতাধিক যানবাহন আটকা পড়ে।এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত পুলিশ মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। তবে ঘাতক বাসটিকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

ওসি জানান, আখতার পঞ্চগড় শহরের পূর্ব জালাসী এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকতেন। তিনি পঞ্চগড় শহরের মাইওয়ান নামে একটি ইলেকক্ট্রিক কোম্পানির শোরুমের বিক্রয় প্রতিনিধি ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ভাঙ্গুড়ায় পূজা দেখতে গিয়ে প্রাণ হারালেন যুবক

পাবনার চাটমোহরে পূজা দেখতে গিয়ে পানিতে ডুবে প্রাণ হারালেন মিল্টন দাস (২৫) ...

Skip to toolbar