সর্বশেষ সংবাদ
Home / বিনোদন / গল্প এবং নির্মাণে আরও মনোযোগী হতে হবে

গল্প এবং নির্মাণে আরও মনোযোগী হতে হবে

ঢাকা ও কলকাতায় সমান জনপ্রিয়তা নিয়ে চলচ্চিত্রে অভিনয় করছেন বিদ্যা সিনহা মিম। সর্বশেষ তার অভিনীত ‘সুলতান’ নামে একটি ছবি মুক্তি পেয়েছে।

সম্প্রতি ‘সাপলুডু’ নামে নতুন একটি ছবিতে অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। বর্তমান ব্যস্ততা ও অন্যান্য প্রসঙ্গ নিয়ে আজকের ‘হ্যালো…’ বিভাগে কথা বলেছেন তিনি

যুগান্তর: ‘সাপলুডু’ ছবিটি নিয়ে আপনাকে বেশ উচ্ছ্বসিত দেখা গেছে…

** বিদ্যা সিনহা মিম: এমন গল্পের একটি ছবিই খুঁজছিলাম এতদিন। সম্পূর্ণ অ্যাকশন ধাঁচের ছবি এটি। অভিনয়ের যথেষ্ট সুযোগ রয়েছে। আমি এবং আরিফিন শুভ ছাড়াও অনেক গুণী শিল্পী থাকছেন এ ছবিতে। সব মিলিয়ে দারুণ একটি কাজ করতে যাচ্ছি আমরা। ছবির পরিচালক গোলাম সোহরাব দোদুল ভাইয়ের সঙ্গে এটাই আমার প্রথম কাজ।

যুগান্তর: ছবিতে আপনার চরিত্র কেমন?

** বিদ্যা সিনহা মিম: একটি চ্যালেঞ্জিং চরিত্রে অভিনয় করব। দর্শকদের জন্য এটা একটা চমক বলা যায়। তাই আগেই কিছু বলতে চাই না। এটুকু বলতে পারি, এর আগে আমি এমন চরিত্রে অভিনয় করিনি। আমি চাই নতুন চমক দর্শক হলে গিয়ে দেখুক। এটা নিশ্চিত যে এ ছবিতে দর্শক আমাকে ভিন্ন চরিত্রে দেখতে পাবেন।

যুগান্তর: টিভি মিডিয়ায় খুব একটা দেখা যায় না, কেন?

** বিদ্যা সিনহা মিম: ব্যস্ত থাকার কারণে টিভি মিডিয়ায় কাজ করার সময় পাই না। তবে এ মাধ্যমে কাজ একেবারেই ছেড়ে দেইনি। সিনেমার ব্যস্ততা কমলে নাটকেও হয়তো অভিনয় করতে পারি।

যুগান্তর: সিনেমায় অভিনয়ের ক্ষেত্রে কোন বিষয়গুলো বেশি প্রাধান্য দেন?

** বিদ্যা সিনহা মিম: সুন্দর গল্প খুঁজি। গল্প ভালো না হলে তো ছবি ভালো হবে না। তারপর চরিত্রের বিষয়ে খুব সতর্ক থাকি। ভালো চরিত্র ছাড়া অভিনয় করি না। এরপর অবশ্যই পরিচালক। একজন ভালো নির্মাতা একটি দুর্বল গল্পকেও অনেক সময় দর্শকনন্দিত করে তুলতে পারেন।

যুগান্তর: ঢাকা ও কলকাতার মধ্যে কাজের পার্থক্য কেমন?

** বিদ্যা সিনহা মিম: দুই জায়গাতে ভালো কাজ হয়। মাঝে ঢাকার ছবিগুলোতে একটু সমস্যা ছিল। এখন ভালো ছবি হচ্ছে। তবে আমাদের আরও বেশি সতর্ক হতে হবে। প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়াতে হবে। গল্প এবং নির্মাণেও মনোযোগ দিতে হবে। না হলে অন্যদের চেয়ে আমরা পিছিয়ে পড়ব।

যুগান্তর: দেশের সেরা নায়ক শাকিব খান ও কলকাতার সেরা নায়ক জিতের সঙ্গে কাজ করেছেন। অভিজ্ঞতা কেমন ছিল?

** বিদ্যা সিনহা মিম: শাকিব ভাইয়া শুটিং সেটে খুব শান্ত থাকেন, চুপচাপ। তার মুখে অন্যের সমালোচনা কখনও শুনি না। আর জিৎ দা’ও ভালো। কিন্তু শুটিং সেটে একটু বেশি কথা বলতেন। অভিনয়ের সময় দু’জনই খুব সিরিয়াস থাকতেন। যত ছোট দৃশ্যই হোক না কেন, একবারই মনোযোগ দিয়ে অভিনয় করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

আইয়ুব বাচ্চুকে ছাড়া এলআরবির প্রথম কনসার্ট বুধবার

এলআরবি’র প্রাণ আইয়ুব বাচ্চু। কিংবদন্তি এই শিল্পী সবাইকে কাঁদিয়ে চলে গেছেন না ...

Skip to toolbar