সর্বশেষ সংবাদ
Home / লাইফস্টাইল / প্রাণহীন রুক্ষ চুলকে মসৃণ ও ঝলমলে করার ঘরোয়া উপায়

প্রাণহীন রুক্ষ চুলকে মসৃণ ও ঝলমলে করার ঘরোয়া উপায়

শুষ্ক ও রুক্ষ আর বিবর্ণ চুল নিয়ে বিষণ্ণতায় ভোগেন অনেকেই। নানা রকম দামী শ্যাম্পু আর এটা ওটা ব্যবহার করেও মেলে না কাঙ্ক্ষিত ফল। তবে কী করবেন? করতে হবে ছোট্ট একটি কাজ। বদলে যাবে চুলের চেহারা।

আসুন জেনে নেই প্রাণহীন রুক্ষ চুলকে মসৃণ ও ঝলমলে করার ঘরোয়া উপায়।

চায়ের লিকার

ঝলমলে চুলের জন্য দারুণ কাজ করে চায়ের লিকার। চুল যেমনি হোক না কেন তৈলাক্ত, শুষ্ক বা স্বাভাবিক এই চায়ের লিকার মানিয়ে যাবে খুব সহজে।

চায়ের লিকার তৈরি

এটা তৈরির জন্য দুই কাপ পানি নিন। তার মাঝে ৬ টেবিল চামচ ফ্রেশ চা পাতা দিন। এটাকে এখন অল্প আঁচে চুলায় ফুটতে দিন। ফুটে ফুটে লিকার ঘন হবে। এবং দুই কাপ পানি কমে এক কাপের কম হলে বুঝবেন যে রেডি। এখন এটাকে ঠাণ্ডা করে ছেঁকে নিন। শ্যাম্পু করার পর ভেজা চুলে এই মিশ্রণ মাখুন। ৫ মিনিট পর সাধারণ পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

ভিনেগার

শ্যাম্পু করে ফেলছেন? এবার ভিনেগার মেশানো পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন চুল। আধা কাপ ভিনেগার এক মগ পানিতে মিশিয়ে নিন। তারপর সেটা দিয়ে ধুয়ে ফেলুন শ্যাম্পু করা চুল। ৫ মিনিট পর আবার একটু স্বাভাবিক পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। শুকিয়ে নিলেই পাবেন ঝলমলে চুল।

বেকিং সোডা

প্রাণহীন চুলকে ঝলমলে করে তুলতে বেকিং সোডার কোনো বিকল্প নেই। এ কাপ হালকা গরম পানির মাঝে ১ টেবিল চামচ বেকিং সোডা মিশিয়ে নিন। শ্যাম্পু করা ভেজা চুলে এই মিশ্রণ লাগান। ৫ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এবার চুলের চমক দেখে নিজেই অবাক হয়ে যাবেন!

ডিম এবং দইয়ের প্যাক

ডিম এবং দইয়ের প্যাক চুলকে সিল্কি করে থাকে। ২ টি ডিমের সাদা অংশ, ২ টেবিল চামচ টকদই। সবগুলো উপাদান নিয়ে একটি ঘন পেষ্ট তৈরি করুন। এইবার পেষ্টটি চুলে ভাল করে লাগান। ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। ডিম আর দইয়ের প্রোটিন আপানার চুলকে গোঁড়া থেকে মজবুত করার সাথে সাথে প্রাকৃতিকভাবে আপানার চুলকে ঝলমল করবে।

মধু এবং ভেজিটেবল অয়েল

মধু প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার। মধু আর ভেজিটেবল অয়েল চুলকে ভেতর থেকে পুষ্টি দিয়ে থাকে। ২ টেবিল চামচ মধু, ২ টেবিল চামচ ভেজিটেবিল অয়েল মিশিয়ে নিন। এটি আপানার চুলে লাগিয়ে নিন। ১৫/২০ মিনিট পর শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

জ্বর হলে কী ওষুধ খাবেন?

ঋতু পরিবর্তনের ফলে ঠাণ্ডা-জ্বরের প্রকোপ বাড়ছে। হুটহাট করে ভাইরাসজনিত জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছে ...

Skip to toolbar