সর্বশেষ সংবাদ
Home / আন্তর্জাতিক / সেরেনা উইলিয়ামসের ছবি এঁকে বিতর্কে কার্টুনিস্ট

সেরেনা উইলিয়ামসের ছবি এঁকে বিতর্কে কার্টুনিস্ট

যুক্তরাষ্ট্র ওপেনে শনিবার নারী এককের ফাইনালে জাপানের নাওমি ওসাকার বিপক্ষে পরাজিত হন সেরেনা উইলিয়ামস। এদিন খেলা চলার সময় কোনো এক মুহূর্তে চেয়ার আম্পায়ারকে ‘চোর বলেন ২৩টি গ্র্যান্ডস্লাম জয়ী সেরেনা।

সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতেই একটি কার্টুন ছবি আঁকেন মার্ক নাইট। যেটা অস্ট্রেলিয়ার একটি সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। সেরেনা উইলিয়ামসের কার্টুন এঁকে প্রবল সমালোচনার মুখে পড়েছেন অজি কার্টুনিস্ট।

যুক্তরাষ্ট্র ওপেনে শনিবার নারী এককের ফাইনালে নিজের শৈশবের আদর্শ সেরেনা উইলিয়ামসকে সরাসরি ৬-২, ৬-৪ গেমে হারিয়ে জাপানের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে কোনো গ্র্যান্ডস্লাম এককে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার অনন্য কীর্তি গড়েছেন নাওমি ওসাকা।

টেনিসভক্তদের মতো এ এক অবিস্মরণীয় রাত ওসাকার কাছেও। বিশ্বের সেরা তারকাকে হারিয়ে জাপানের হয়ে প্রথম গ্র্যান্ড স্লাম খেতাব পকেটে পোরেন ২০ বছরের তরুণী।

জাপানি কন্যার ঐতিহাসিক সাফল্য একটু হলেও ম্লান হয়েছে অনাকাঙ্ক্ষিত এক বিতর্কে। চেয়ার আম্পায়ারের সঙ্গে ম্যাচজুড়ে সেরেনার বাকবিতণ্ডায় নষ্ট হয়েছে ম্যাচের সৌন্দর্য। আসলে কোর্টের লড়াইয়ের চেয়ে বিতর্কই বেশি উত্তাপ ছড়িয়েছে ফাইনালে। সেখানে ওসাকার কোনো ভূমিকা ছিল না।

চেয়ার আম্পায়ার কার্লোস রামোসের সঙ্গে ঠোকাঠুকির একপর্যায়ে সরাসরি তাকে ‘চোর’ বলে তোলপাড় ফেলে দিয়েছেন সেরেনা উইলিয়ামস।

শনিবার আর্থার অ্যাশে স্টেডিয়ামে ইউএস ওপেনের দ্বিতীয় সেটের দ্বিতীয় গেমের সময় নাটকীয় ঘটনা ঘটে। ওসাকা প্রথম সেট জিতে নেন ৬-২ ব্যবধানে। তারপর দেখা যায় প্লেয়ার বক্স থেকে সেরেনাকে কিছু ইঙ্গিত করছেন তার কোচ প্যাট্রিক। যে কারণে মার্কিন তারকাকে সতর্ক করেন চেয়ার আম্পায়ার কার্লোস ব়্যামোস। আর এতেই মেজাজ হারান সেরেনা। আম্পায়ারকে চিৎকার করে বলতে থাকেন, তিনি কোর্টে দাঁড়িয়ে কোচের থেকে কোনও পরামর্শ নেননি। ক্যারিয়ারে কখনও প্রতারণা করেননি তিনি।

সেরেনায় কথায়, জেতার জন্য কখনও মিথ্যের আশ্রয় অবলম্বন করিনি। তার চেয়ে ভাল আমি হেরে যাব।

চেয়ার আম্পায়ারের প্রতি সেরেনার এমন আচরণ নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। দ্বিতীয় সেটের সময় পিছিয়ে পড়ে সজোরে ব়্যাটেক ছুঁড়ে ফেলতেও দেখা যায় ২৩ টি গ্র্যান্ড স্লামের মালকিনকে। পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত হয়।

এরপর ডকেট পয়েন্ট কেটে নেওয়ায় ব়্যামোসকে ক্ষমা চাইতে বলেন। কিন্তু লাভ হয়নি। আর তখনই চেয়ার আম্পায়ারকে উদ্দেশ্য করে সেরেনা বলেন, আপনি মিথ্যাবাদী। আমি বেঁচে থাকতে আমার কোর্টে আর কখনও আপনাকে দেখা যাবে না।

এমন ঘটনায় সেরেনার বিরুদ্ধে ‘মৌখিকভাবে অপমানের’ অভিযোগ তোলেন ব়্যামোস।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

অবশেষে মি টু ঝড়ে মন্ত্রিত্ব ছাড়লেন এমজে আকবর

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রটে যাওয়া খবর অবশেষে সত্য হল। ৩ দিন আগের ...

Skip to toolbar