সর্বশেষ সংবাদ
Home / লাইফস্টাইল / গাঁজা দিয়ে তৈরি হবে কোমল পানীয়!

গাঁজা দিয়ে তৈরি হবে কোমল পানীয়!

গাঁজার কদর যেন দিন দিন বেড়েই চলছে। কানাডায় প্রথম ওষুধ হিসেবে এ মাদকের অনুমোদন দিলেও পরে তা আনন্দ বিনোদনের জন্য বৈধ করা হয়।

কিন্তু বর্তমানে এটি দিয়ে কোমল পানীয় তৈরির কথা ভাবছে ক্যাফেইনভিত্তিক পানীয় তৈরি করার জন্য সারা বিশ্বে পরিচিত প্রতিষ্ঠান কোকাকোলা। খবর বিবিসির।

কানাডার বিএনএন ব্লুমবার্গ টিভি চ্যানেলের তথ্যানুযায়ী, স্থানীয় উৎপাদক ‘অরোরা ক্যানাবিস’-এর সঙ্গে গাঁজার স্বাদযুক্ত কোমল পানীয় উৎপাদনের বিষয়ে আলোচনা করছে কোকাকোলা।

গ্রাহকদের মাদকাসক্ত করতে নয়, তাদের শারীরিক যন্ত্রণা লাঘবই পানীয় প্রস্তুতকারীদের উদ্দেশ্য।

এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানালেও কোকাকোলা বলছে- গাঁজাসংশ্লিষ্ট পানীয়ের বাজার পর্যবেক্ষণ করছে তারা।

কোকাকোলা জানিয়েছে, তারা পর্যবেক্ষণ করে দেখছে- কোমল পানীয় তৈরির ক্ষেত্রে নন-সাইকোঅ্যাক্টিভ ক্যানাবিডিওল বা চিত্ত উত্তেজিত করে না এমন গাঁজাজাতীয় দ্রব্যের ব্যবহার কতটা জনপ্রিয়তা পাচ্ছে?

ক্যানাবিডিওল ক্যানাবিস গাঁজার একটি উপাদান, যা ব্যথা বা খিঁচুনির চিকিৎসার ক্ষেত্রে আরামদায়ক হতে পারে এবং এর কোনো চিত্ত উত্তেজক প্রভাব নেই।

যুক্তরাষ্ট্রের কয়েকটি রাজ্যের উদাহরণ অনুসরণ করে এ বছর সারা দেশে গাঁজার বিনোদনমূলক ব্যবহার আইনত বৈধ করতে যাচ্ছে কানাডা।

চিকিৎসা কাজে অবশ্য অনেক আগে থেকেই গাঁজা বৈধ কানাডায়। এ সিদ্ধান্তের ফলে কানাডায় গড়ে উঠেছে বিশাল আকারের গাঁজাশিল্প।

বিশ্বখ্যাত ‘করোনা’ বিয়ার প্রস্তুতকারী সংস্থা কনস্টেলেশন ব্র্যান্ডস গাঁজা উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ক্যানোপি গ্রোথের ওপর ৪ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে।

কোকাকোলা আর অরোরার অংশীদারিত্বের ফলে গাঁজার পানীয়ের বাজারে প্রথম নন-অ্যালকোহলিক পানীয় হিসেবে যাত্রা শুরু হবে কোকের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

ত্বকে জ্যোতি বাড়বে মসুর ডাল

ত্বকের যত্নে মসুর ডালের জুড়ি নেই। মসুর ডাল ত্বকের ক্ষতিকর উপাদানদের বের ...

Skip to toolbar