সর্বশেষ সংবাদ
Home / লাইফস্টাইল / শিল্পোন্নত দেশের মানুষ কেন বেশি মাংস খায়?

শিল্পোন্নত দেশের মানুষ কেন বেশি মাংস খায়?

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা জানিয়েছে, ২০১৫ সালে বিশ্বের প্রতিটি মানুষ (মাথা পিছু) গড়ে মাংস খেয়েছে ৪১.৩ কেজি৷ অথচ ৫০ বছর আগে এর অর্ধেক মাংস খাওয়া হতো৷ গত বছর উন্নয়নশীল দেশে যেখানে মাথা পিছু ৩১.৬ কেজি মাংস খাওয়া হয়েছে, শিল্পোন্নত দেশে খাওয়া হয়েছে ৯৫.৭ কিলোগ্রাম৷

আসুন জেনে নিই শিল্পোন্নত দেশের মানুষ কেন বেশি মাংস খায়-

উৎপাদনে পানি খরচ

মাংস উৎপাদন একটি ব্যয়বহুল ব্যবসা৷ এতে অর্থ, সময় ও সম্পদ খরচ হয়৷ এক কেজি গরুর মাংস উৎপাদনে ১৫ হাজার ৪১৫ লিটার পানি লাগে৷ এক কেজি শুকরের মাংস উৎপাদনে লাগে ৬ হাজার লিটার পানি৷ অন্যদিকে সবজি- আলু উৎপাদনে এক কেজিতে খরচ হয় ৩০০ লিটার পানি৷ অন্যদিকে ধান উৎপাদনে প্রতি কেজিতে খরচ হয় দুই হাজার ৫০০ লিটার পানি৷

গরু ও মুরগির খাদ্য

ওয়ার্ল্ড ওয়াচ ইনস্টিটিউটের মতে, বিশ্বের উৎপাদিত প্রতি পাঁচ টন শস্যের মধ্যে দুই টন পোলট্রি বা মাছের খামারে যায়৷ অন্যদিকে গরুর মাংস উৎপাদনের জন্য এত খাদ্য ব্যয় হয় না৷ ঘাস খেয়েই এদের অনেকটা চাহিদা পূরণ হয়৷

উজাড় হচ্ছে বন

প্রাণী খাদ্যের জন্য বন উজাড় হচ্ছে সবচেয়ে বেশি৷ গাছ কেটে গরু চারণ ক্ষেত্র বা কৃষিক্ষেত্র বাড়ানো হচ্ছে৷ ফলে জীববৈচিত্র্য হারিয়ে যাচ্ছে৷ সেই সঙ্গে বৃদ্ধি পাচ্ছে বৈশ্বিক উষ্ণতা৷

বিষাক্ত মিথেন

গরুর ঢেঁকুর বা ‘গ্যাস’ থেকে যে মিথেন উৎপন্ন হয়, তা কার্বন-ডাই-অক্সাইডের চেয়ে ২০ গুণ বিষাক্ত ও ক্ষতিকর৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

শীতে মৌসুমি ফল

শিশির ভেজা ভোরে গুটি গুটি পায়ে চাদর মুড়ে শীত চলে এসেছে বছর ...

Skip to toolbar