আবার নির্বাচনে জিততে শির সাহায্য চেয়েছিলেন ট্রাম্প: জন বোল্টন

দ্বিতীয় দফায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জিততে চীনের রাষ্ট্রপ্রধান শি জিনপিংয়ের কাছে সাহায্য পাওয়ার চেষ্টা করেছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। সাবেক মার্কিন নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনের ‘দ্য রুম হয়্যার ইট হ্যাপেন’ নামের নতুন বই থেকে এ তথ্য জানা গেছে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে এই খবর জানিয়েছে।

৫৭৭ পৃষ্ঠার বইটি আগামী ২৩ জুন প্রকাশিত হবে। কিন্তু এই বইয়ে অতি গোপনীয় কিছু আছে, যা ট্রাম্প প্রশাসনে অস্থিরতা তৈরি করবে এমন শঙ্কায় তা প্রকাশে বাধা দেওয়া হচ্ছে। বইটি প্রকাশ বন্ধে বুধবার রাতে একজন বিচারকের কাছে জরুরি আদেশ চেয়েছেন মার্কিন বিচার বিভাগ।

২০১৮ সালের এপ্রিলে ট্রাম্পের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা হন বোল্টন। পরের বছর সেপ্টেম্বরে মতবিরোধের কারণে পদত্যাগ করেন তিনি। হোয়াইট হাউজের ভেতরে কী ঘটেছে সেটাই এবার সামনে আনতে যাচ্ছেন সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত।

বইয়ের কিছু অংশ প্রকাশ করেছে শীর্ষ সংবাদপত্র নিউইয়র্ক টাইমস। বোল্টন তার বইয়ে লিখেছেন, ২০১৯ সালের জুনে জাপানের ওসাকায় জি ২০ শীর্ষ সম্মেলনে একক বৈঠকে বসেছিলেন ট্রাম্প ও শি। চীনা প্রেসিডেন্ট অভিযোগ করেন, কিছু মার্কিন চীনা সমালোচক চীন-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে নতুন স্নায়ুযুদ্ধ বাঁধানোর চেষ্টা করছে। ট্রাম্প এই সমালোচকদের ডেমোক্র্যাট দলের বলে উল্লেখ করেন চীনা প্রেসিডেন্টের কাছে।

বোল্টনের ভাষ্য, ‘ট্রাম্প হুট করে আলোচনা ঘুরিয়ে নিলো আসন্ন মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের দিকে (২০২০ সালের)। চীনের অর্থনৈতিক সক্ষমতার দিকে ইঙ্গিত করে দ্বিতীয় দফায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জেতা নিশ্চিত করতে শির সাহায্য চান ট্রাম্প। কৃষকদের গুরুত্ব সম্পর্কে জোর দেন তিনি এবং নির্বাচনে জিতলে চীনের কাছ থেকে সয়াবিন ও গম কেনা বাড়ানোর প্রতিশ্রুতি দেন।’

বাণিজ্য আলোচনায় কৃষিপণ্যকে অগ্রাধিকার দেওয়ায় শি সম্মতি দিলে ট্রাম্প তাকে ‘চীনা ইতিহাসের মহান নেতা’ উল্লেখ করেন।

বুধবার সন্ধ্যায় বোল্টনের এ দাবি উড়িয়ে দেন মার্কিন বাণিজ্য প্রতিনিধি রবার্ট লাইটহাইজার এবং বলেন, পুনর্নির্বাচিত হতে সাহায্য চাওয়ার ঘটনা ‘কখনোই ঘটেনি’।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

সম্পাদকঃ শারমিন আক্তার, প্রকাশকঃ মোঃ এনামুল হক, হুজাইফা এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড কর্তৃক চৌধুরী মল ৪৩, শহীদ নজরুল ইসলাম সড়ক (হাটখোলা রোড), টিকাটুলি, ঢাকা-১২০৩ হতে প্রকাশিত। ফোন-ফ্যাক্স: ৭১২৫৩৮৬। । ই-মেইল: tatkhonik@gmail.com