এখনো জমেনি গাবতলী পশুর হাট, গরু আসার অপেক্ষায় বিক্রেতারা

ঈদুল আজহার বাকি ছয় দিন থাকলেও এখনো গাবতলী পশুর হাট জমে উঠেনি। করোনার পাশাপাশি হাট প্রস্তুত না হওয়ায় ব্যবসায়ী এবং ক্রেতাদের সমাগমও কম।

বিক্রেতারা বলছেন, দু-একদিনের মধ্যেই ঢাকার বাইরে থেকে গরু আসা শুরু হবে। ঈদের তিনদিন আগে থেকে পুরোদমে কেনাবেচা বাড়বে।

শুক্রবার (২৪ জুলাই) গাবতলী হাটে গিয়ে দেখা যায়, প্রস্তুত হচ্ছে পশুহাট। বাঁশের মাচা বানানো, সামিয়ানা ও ত্রিপল বিছানোর কাজ চলছে। ইজারাদার সংশ্লিষ্টরা বলছেন, কোরবানির হাট মূলত জমে উঠবে ঈদের তিন চারদিন আগে। এখনো গরু নিয়ে আসা শুরু করেনি ব্যাপারীরা। তবে এখন ছাগল বিক্রি হচ্ছে। কিছু গরুও বিক্রি হচ্ছে।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, জুমার নামাজের পর কিছু দর্শনার্থী হাটে এসেছেন। তারা ছাগল দেখছেন। স্থানীয় ব্যবসায়ীদের আনা গরু দেখছেন। দাম যাচাই করছেন। দু-একজন কিনলেও অধিকাংশই কিনছেন না। তারা ঈদের এক-দুই দিন আগে পশু কিনবেন।

সেলিম হোসেন নামের একজন ক্রেতা বলেন, যে গরু গত বছর দেখলাম ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকা, সে গরু এখন চাওয়া হচ্ছে ৮০ থেকে ৯০ হাজার টাকা। দেখি শেষের দিকে হয়তো দাম কমবে। তখন নেওয়া যাবে। আশা করছি, ঢাকার বাইরে থেকে গরু আসা শুরু হলে দাম কমবে।

ব্যাপারী মোসলেম মিয়া বলেন, কোরবানির বাকি এখনো প্রায় এক সপ্তাহ। বেচাকেনা শুরু হয়নি। অনেকে গরু নিয়েই আসেনি। আমি এই হাটে সারা বছর গরু বিক্রি করি। তাই আগে থেকেই হাটে গরু নিয়ে এসেছি। লোকজন আসছেন, দেখছেন। দু-একদিন পর হয়তো বিক্রি শুরু হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

সম্পাদকঃ শারমিন আক্তার, প্রকাশকঃ মোঃ এনামুল হক, হুজাইফা এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড কর্তৃক চৌধুরী মল ৪৩, শহীদ নজরুল ইসলাম সড়ক (হাটখোলা রোড), টিকাটুলি, ঢাকা-১২০৩ হতে প্রকাশিত। ফোন-ফ্যাক্স: ৭১২৫৩৮৬। । ই-মেইল: tatkhonik@gmail.com