করোনা শনাক্তে আরো বেশি পরীক্ষার পরামর্শ

করোনাভাইরাস শনাক্তের জন্য আরো বেশি জায়গায় বেশি পরিমাণে পরীক্ষা করার পরামর্শ দিয়েছে জাতীয় টেকনিক্যাল পরামর্শ কমিটি।

মঙ্গলবার (২৮ এপ্রিল) জাতীয় টেকনিক্যাল পরামর্শ কমিটির দ্বিতীয় সভায় এ পরামর্শ দেওয়া হয়। সভায় পাঁচটি সাব-কমিটির রিপোর্ট পর্যালোচনা করে কয়েকটি সুপারিশ করা হয়।

রাতে জাতীয় টেকনিক্যাল পরামর্শ কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ সহিদুল্লা সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছেন।

বিজ্ঞপ্তিতে তিনি বলেন, তীব্রভাবে আক্রান্ত বা মুমূর্ষু রোগীদের জন্য নিবিড় পরিচর্যা প্রয়োজন। এজন্য যথেষ্ট নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্র করা দরকার। এখানে যথেষ্ট সংখ্যক ভেন্টিলেটর ও অন্যান্য যন্ত্রপাতি থাকা প্রয়োজন।

করোনা রোগীদের চিকিৎসায় নিয়োজিত হাসপাতালসমূহে তিন শিফটে ভাগ করে স্বাস্থ্যকর্মীদের কাজ করার ব্যবস্থা থাকা দরকার। প্রতি শিফটে সমন্বয়ের জন্য প্রশাসনের একজন জ্যেষ্ঠ সদস্য থাকা প্রয়োজন।

করোনা পরীক্ষার ল্যাবরেটরিসমূহ বায়োসেফটি লেভেল-২ অনুযায়ী পরিচালনা করা উচিত। এই ল্যাবরেটরিগুলোতে প্রবেশাধিকার সংরক্ষিত থাকা দরকার। বায়োসেফটি ক্যাবিনেটসমূহ নিয়মিতভাবে ক্যালিব্রেশন করা দরকার, এজন্য সার্টিফায়েড ইঞ্জিনিয়ার প্রয়োজন হবে। স্বল্প মেয়াদে ৫ লাখ টেস্টিং কিট সংগ্রহ করা খুব জরুরি।

বর্তমানে শুধু উপসর্গসহ যেসব রোগী কোভিড নির্ণয় কেন্দ্রসমূহে আসেন, তাদেরই পরীক্ষা করা হচ্ছে। এ রোগের প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণ করার জন্য যে সমস্ত মানুষের উপসর্গ আছে কিন্তু রোগ নির্ণয় কেন্দ্রে আসছেন না, তাদের খুঁজে বের করে টেস্ট এর আওতায় আনতে হবে।

রোগের প্রাদুর্ভাবের ভিত্তিতে (বেশি, মাঝারি ও কমসংখ্যক) এলাকা চিহ্নিত করতে হবে। যেসব ঘনবসতি এলাকা ঝুঁকিপূর্ণ (যেমন: শহরের বস্তি, পোশাককর্মীদের বাসস্থান), সেখানে কোনো ব্যক্তি রোগাক্রান্ত হলে এবং তার হাসপাতালে ভর্তির প্রয়োজন না হলে, তিনি যেন আইসোলেশনে থাকতে পারেন, এমন বাসস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে।

এ রোগের জন্য ভ্যাকসিন তৈরির প্রক্রিয়া বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শুরু হয়েছে। এ প্রক্রিয়ায় উন্নয়নশীল দেশসমূহও যুক্ত হচ্ছে। বাংলাদেশের বিশেষজ্ঞ ও বৈজ্ঞানিকদের সংযুক্ত হওয়ার প্রচেষ্টা থাকা প্রয়োজন। সফল ভ্যাকসিন তৈরি হওয়ার পর বাংলাদেশের সমগ্র জনগণ যাতে এ ভ্যাকসিন পায় সেজন্য আন্তর্জাতিক পর্যায়ে এখন থেকেই সচেষ্ট থাকা দরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

সম্পাদকঃ শারমিন আক্তার, প্রকাশকঃ মোঃ এনামুল হক, হুজাইফা এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড কর্তৃক চৌধুরী মল ৪৩, শহীদ নজরুল ইসলাম সড়ক (হাটখোলা রোড), টিকাটুলি, ঢাকা-১২০৩ হতে প্রকাশিত। ফোন-ফ্যাক্স: ৭১২৫৩৮৬। । ই-মেইল: tatkhonik@gmail.com