কেন শ্রীদেবীকে ট্রাক ভর্তি গোলাপ পাঠিয়েছিলেন অমিতাভ?

প্রয়াত অভিনেত্রী শ্রীদেবী। তাকে বলা হয় ভারতের প্রথম নারী সুপারস্টার। অভিনয় দিয়ে রুপালি জগতে শক্ত অবস্থান তৈরি করেছিলেন তিনি। পাশাপাশি পর্দার বাইরেও চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্টরা তাকে যথেষ্ট সমীহ করতেন। কারণ ব্যক্তিত্বের দিক থেকেও শ্রীদেবী ছিলেন অন্যদের চেয়ে আলাদা।

‘বলিউডের শাহেনশাহ’খ্যাত অমিতাভের সঙ্গে ইনকিলাব, আখেরি রাস্তা সিনেমায় অভিনয় করেছেন শ্রীদেবী। নব্বইয়ের দশকে অমিতাভ যখন অভিনয় ক্যারিয়ারের সবচেয়ে ভালো সময় পার করছিলেন তখন শ্রীদেবীই একমাত্র অভিনেত্রী যিনি এই অভিনেতার সমপরিমাণ পারিশ্রমিক দাবি করে সবাইকে চমকে দিয়েছিলেন। শুধু তাই নয়, চরিত্র পছন্দ না হওয়ায় অমিতাভের বিপরীতে অভিনয় না করার সাহসও দেখিয়েছিলেন তিনি। এই ঘটনা বলিউডে তাকে অনন্য উচ্চতায় পৌঁছে দিতে ভূমিকা রাখে। মিডিয়া শ্রীদেবীকে ‘নারী বচ্চন’ উপাধি দেয়। এরপর তিনি যখন অমিতাভের সঙ্গে সিনেমায় অভিনয় বন্ধ করে দেয় বিষয়টি নতুন মাত্রা যোগ করে। ফিল্ম ফেয়ার তো শিরোনামই করে ফেলেছিল, ‘আউট অব রিচ’ অর্থাৎ ‘ধরা ছোঁয়ার বাইরে।’

পরবর্তী সময়ে অমিতাভ ও শ্রীদেবীকে নিয়ে আজুবা সিনেমা নির্মাণ করতে চাইলেন শশী কাপুর। কিন্তু চরিত্র পছন্দ না হওয়ায় রাজি হননি শ্রীদেবী। এছাড়া বাজেটও বড় একটি কারণ ছিল। এরপর রমেশ সিপ্পি রাম কি সীতা শ্যাম কি গীতা সিনেমায় এই জুটিকে নিতে চাইলেন। কিন্তু সিনেমাটির কাজ আর আগায়নি। মজার বিষয়, জনপ্রিয় ‘জুম্মা চুম্মা’ গানটি এই সিনেমার জন্যই তৈরি হয়েছিল। এ প্রসঙ্গে কোরিওগ্রাফার সরোজ খান বলেন, ‘দৃশ্যটি ভাবা হয়েছিল, অমিতাভ পুলিশ অফিসার আর তিনি পকেটমার শ্রীদেবীকে হাতে নাতে ধরবেন। এরপর শ্রীদেবী তাকে ঘুষ দিতে চাইলে অমিতাভ চুম্মা চাইবেন।’ কিন্তু পরবর্তী সময়ে গানটি হাম সিনেমায় ব্যবহার হয়। এভাবে চরিত্র পছন্দ না হওয়ায় অমিতাভের সঙ্গে একের পর এক সিনেমা ফিরিয়ে দিতে থাকেন শ্রীদেবী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

সম্পাদকঃ শারমিন আক্তার, প্রকাশকঃ মোঃ এনামুল হক, হুজাইফা এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড কর্তৃক চৌধুরী মল ৪৩, শহীদ নজরুল ইসলাম সড়ক (হাটখোলা রোড), টিকাটুলি, ঢাকা-১২০৩ হতে প্রকাশিত। ফোন-ফ্যাক্স: ৭১২৫৩৮৬। । ই-মেইল: tatkhonik@gmail.com