দিল্লির কাছে ঝাঁকে ঝাঁকে পঙ্গপাল

ভারতের রাজধানী দিল্লির সীমান্তবর্তী গুরুগ্রাম এলাকায় পৌঁছে গেছে পঙ্গপাল। একাধিক ভিডিওতে গুরুগ্রামের শহর ও গ্রামে শনিবার সকালে পঙ্গপাল দেখা গেছে। জেলার সাইবার হাব এলাকার কাছে এমনভাবে হাজার হাজার পঙ্গপাল দল বেঁধে আক্রমণ করেছে যাকে হঠাৎ দেখে কালো মেঘ বলে মনে হতে পারে।

এই ফসলখেকো পতঙ্গের দল এখনও রাজধানীর দিকে ধাওয়া করেনি। তবে আশঙ্কা, যে কোনোদিন গুরুগ্রাম থেকে দিল্লিতেও হানা দেবে পঙ্গপাল।

হরিয়ানা রাজ্য সরকার রেওয়ারি ও গুরুগ্রামে পঙ্গপাল প্রবেশের পর উচ্চ সতর্কতা জারি করেছে। কর্তৃপক্ষ অবশ্য জানিয়েছে, পঙ্গপাল ঠেকাতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

পঙ্গপালের হামলা থেকে বাঁচতে গুরুগ্রামের বাসিন্দাদের যতটা সম্ভব দরজা-জানলা বন্ধ করে রাখার পরামর্শ দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন। পাশাপাশি বাসনপত্র, ঢাক-ঢোল, হাতের কাছে যা পাওয়া যাবে তাই পিটিয়ে ক্রমাগত শব্দ করারও পরামর্শ দিয়েছে তারা। কারণ খুব জোরে নানারকম আওয়াজ করলে পঙ্গপালের ঝাঁক ছত্রভঙ্গ হয়ে পড়বে বলে ধারণা করা হয়।

দিল্লির পরিবেশ মন্ত্রী গোপাল রায় প্রতিবেশী গুরুগ্রামে পঙ্গপালের হানার পর পরিস্থিতি পর্যালোচনায় জরুরি বৈঠক ডেকেছেন। বৈঠকে প্রশাসনকে সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছেন মন্ত্রী।

গুরুগ্রাম প্রশাসন বলেছে, কৃষকদের অবশ্যই কীটনাশক স্প্রে করার পাম্পগুলোকে প্রস্তুত রাখতে হবে, যাতে প্রয়োজনের সময় তারা সেটা ব্যবহার করতে পারেন।

এর আগে রাজস্থান, গুজরাট, মধ্যপ্রদেশ এবং হরিয়ানাসহ পশ্চিম এবং মধ্য ভারতের বহু অংশে হানা দিয়ে বিঘার পর বিঘা জমির ফসল নষ্ট করেছে পঙ্গপাল। এর সঙ্গে লড়াই করতে ১১টি কন্ট্রোল রুম খুলেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

সম্পাদকঃ শারমিন আক্তার, প্রকাশকঃ মোঃ এনামুল হক, হুজাইফা এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড কর্তৃক চৌধুরী মল ৪৩, শহীদ নজরুল ইসলাম সড়ক (হাটখোলা রোড), টিকাটুলি, ঢাকা-১২০৩ হতে প্রকাশিত। ফোন-ফ্যাক্স: ৭১২৫৩৮৬। । ই-মেইল: tatkhonik@gmail.com