লকডাউন অমান্য করলে দুই বছরের কারাদণ্ড

প্রকাশিত: ৫:৩৯ অপরাহ্ণ, ৩ এপ্রিল ২০২০

ভারতে যারা লকডাউন অমান্য করবে বা সরকারি কর্মীদের বাধা দেবে তাদের এক থেকে দুই বছরের জন্য জেলে পাঠাতে হবে। বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্য সরকারগুলোর উদ্দেশে এমনই বার্তা দিয়েছে। এছাড়া চিকিৎসক বা স্বাস্থ্য কর্মীদের ওপরে আক্রমণ করবে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশও দেয়া হয়। চিকিৎসক বা স্বাস্থ্য কর্মীদের ওপরে হামলা করলে এক বছরের জেল হতে পারে। যদি এর ফলে কোনও চিকিৎসক বা স্বাস্থ্য কর্মীর মৃত্যু হয় তাহলে জেল হবে দুই বছরের।

ক্যাবিনেট সচিব রাজীব গৌবা সব রাজ্য সরকারকে চিঠি লিখে অনুরোধ করেন আইন অমান্য করলে কড়া পদক্ষেপ নেয়ার জন্য। মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরে স্বাস্থ্য কর্মীদের পাথর ছোঁড়া ও তাড়া করার ভিডিও প্রকাশ্যে আসার পরেই কেন্দ্রের এই নির্দেশিকা জারি হলো। ওই অঞ্চলে একজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পরে চিকিৎসকরা সেখানে গিয়েছিলেন সেখানকার বাসিন্দাদের স্ক্রিনিং করাতে। একটি ভিডিও দেখা গেছে কর্নাটকেও। সেখানে এক স্বাস্থ্যকর্মীকে মারধর করা হয় একজনের শরীরে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ার পর। ওই ঘটনা বেঙ্গালুরুর।

হায়দরাবাদে বুধবার এক করোনা আক্রান্তের মৃত্যুর পর দুই চিকিৎসককে মারধর করার ঘটনা ঘটে। মৃত ব্যক্তির ভাইরা ওই চিকিৎসককে মারধর করে বলে জানা গেছে। তাদেরও শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়েছে বলে জানা গেছে।

রাজ্যগুলোকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে, ২৪ মার্চের লকডাউন গাইডলাইনে পরিষ্কার বলে দেয়া হয়েছে যারা নিয়ম মানবে না তাদের বিরুদ্ধে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা আইন, ২০০৫ অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। পাশাপাশি ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৮৮ ধারা অনুযায়ী আইনি ব্যবস্থাও নেয়া হবে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ডাকা তিন সপ্তাহের লকডাউনের নবম দিন ছিল বৃহস্পতিবার। সংক্রমণের শৃঙ্খলকে ভাঙতে ওই নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী। উল্লেখ্য, ভারতে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা আড়াই হাজার ছাড়িয়ে গেছে। মারা গেছে ৭২ জন। আর সুস্থ হয়ে উঠেছে ১৯২ জন।

কেএ/ডিএ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

সম্পাদকঃ শারমিন আক্তার, প্রকাশকঃ মোঃ এনামুল হক, হুজাইফা এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড কর্তৃক চৌধুরী মল ৪৩, শহীদ নজরুল ইসলাম সড়ক (হাটখোলা রোড), টিকাটুলি, ঢাকা-১২০৩ হতে প্রকাশিত। ফোন-ফ্যাক্স: ৭১২৫৩৮৬। । ই-মেইল: tatkhonik@gmail.com