সমালোচনার মুখে যা বললেন নোবেল

তোমাদের লিজেন্ড গত দশ বছর ধরে কয়টা ফ্লপ অথবা হিট রিলিজ করেছে কমেন্টস সেকশনে জানাও। থুক্কু বাংলাদেশে তো গত ১০ বছরে ভালো করে কেউ মিউজিকই করেনি। দাঁড়াও তোমার লিজেন্ডদের না হয় আমিই শিখাবো, কীভাবে ২০২০ সালে মিউজিক করতে হয়।’—রিয়েলিটি শো ‘সারেগামাপা-২০১৯’ খ্যাত কণ্ঠশিল্পী নোবেল তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এমন স্ট্যাটাস দিয়ে তুমুল সমালোচনার মুখে পড়েছেন।

এই উঠতি কণ্ঠশিল্পীর এমন অহমবোধ দেখে অনেকে তিরস্কার করেছেন। একজন শিল্পীর কাছ থেকে এমন আচরণ মোটেও প্রত্যাশা করেন না বলে নেটিজেনরা মন্তব্য করছেন। কেউ কেউ মন্তব্য করেছেন, সুস্থ মস্তিস্কে এই কথাগুলো শিল্পী নোবেল লিখে থাকলে আর কখনো তার গান শুনবেন না। আবার অনেকের ধারণা, নোবেলের ফেসবুক পেজ হ্যাক হয়েছে। কারণ পেজ হ্যাক না হলে এ ধরনের মন্তব্য তিনি করতে পারেন না।

নোবেলের বিতর্কিত মন্তব্য নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনার ঝড় বইছে। ঠিক এই সময়ে ফেসবুক লাইভে এসে নোবেল জানালেন, তার পেজটি হ্যাক হয়নি। এতে যেন সমালোচনার আগুনে নতুন করে ঘি ঢাললেন নোবেল নিজেই।

আজ বুধবার লাইভে নোবেল বলেন—এই ভাই, কি শুনলাম আমি। শুনলাম পেজ নাকি হ্যাক হইছে! কই পেজ তো হ্যাক হয় নাই, এই যে আমি নোবেল, রক্তে-মাংসের নোবেল। এই যে দেখেন গাল, নাক ধরা যায়। পেজ-টেজ হ্যাক হয় নাই। সুতরাং কোনো সমস্যা নাই।

সংগীত ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই সমালোচনার জন্ম দিয়ে আসছেন কণ্ঠশিল্পী মাঈনুল আহসান নোবেল। গত বছরের ১৮ ডিসেম্বর নোবেল তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ ও ইউটিউবে ‘দেশ’ শিরোনামে একটি গান প্রকাশ করেন। গানটির কথা ও সুর নিজের বলে দাবি করেন। এরপর নোবেলের বিরুদ্ধে এই গান চুরির অভিযোগ তুলেন ব্যান্ডদল ‘অ্যাবাউট ডার্ক’।

২০১৮ সালেও নোবেল এই গানটি নিজের দাবি করে প্রকাশ করেছিল। তখন সমালোচনার মুখে পড়ে গানটি সরিয়ে নিতে বাধ্য হয়। শুধু তাই নয়, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে স্ট্যাটাস দিয়ে নোবেল ক্ষমা চেয়েছিল বলেও জানান ‘অ্যাবাউট ডার্ক’ ব্যান্ডের সদস্য পূর্ণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

সম্পাদকঃ শারমিন আক্তার, প্রকাশকঃ মোঃ এনামুল হক, হুজাইফা এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড কর্তৃক চৌধুরী মল ৪৩, শহীদ নজরুল ইসলাম সড়ক (হাটখোলা রোড), টিকাটুলি, ঢাকা-১২০৩ হতে প্রকাশিত। ফোন-ফ্যাক্স: ৭১২৫৩৮৬। । ই-মেইল: tatkhonik@gmail.com