​দেখলাম না একটি ব্যাগ কারো হাতে তুলে দিতে: নওফেল

শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেছেন,বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন দেশের খাদ্যের অভাব নেই। এমন সময়ে হঠাৎ মনে হলো নালিশ পার্টি বিএনপির কথা। কোটি কোটি টাকার ধনকুবের একেকজন। দেখলাম না একটি ব্যাগ কারো হাতে তুলে দিতে, শুনলাম না কোনো ভালো কথা, জানলাম না তারা সব কোথায়।বৃহস্পতিবার ( ১ এপ্রিল) সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় তার ফেসবুক আইডিতে এক স্টাটাসে এই কথা জানান।মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, অন্তত চট্টগ্রামের কথা বলতে পারি। প্রায় প্রত্যেক ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান, সরকারি প্রতিষ্ঠান, বাহিনী, সংসদ সদস্য, বর্তমান -অতীত -ভবিষ্যত জনপ্রতিনিধি সকলেই সরকারের বরাদ্দের বাইরেও প্রচুর খাদ্য বিতরণ করছেন। যে যেখানে পারছেন।

অনেক অসুস্থ প্রতিযোগিতার কথা আমরা শুনি, কিন্তু আমাদের প্রাণের শহরে যা হচ্ছে তা আমি বলবো রীতিমতো একটি সুস্থ প্রতিযোগিতা! তিনি বলেন, চট্টগ্রামের মানুষ সবাই আমরা বিত্তশালী নই মধ্যবিত্ত শ্রেণি বেশ ছোট, কিন্তু একেবারে প্রতিযোগিতা করে ত্রাণ দিচ্ছি। বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন দেশের খাদ্যের অভাব নেই। এমন সময়ে হঠাৎ মনে হলো নালিশ পার্টি বিএনপির কথা। কোটি কোটি টাকার ধনকুবের একেকজন। দেখলাম না একটি ব্যাগ কারো হাতে তুলে দিতে, শুনলাম না কোনো ভালো কথা, জানলাম না তারা সব কোথায়।১৯৯১ সালের ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী অবস্থার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, এদের সরকারের ভয়াবহ নিস্ক্রিয়তার কথা মনে আছে, ১৯৯১ সালের ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী। মার্কিন সেনাবাহিনীর একটি ত্রাণের দল নামিয়ে বিদেশে ভিক্ষা খোঁজা শুরু। সেই সময়ে যখন সরকারের পক্ষ থেকে কোনো পদক্ষেপ নাই, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা ও সহযোগিতায় দুয়েক জন দানবীরকে নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে আমার বাবা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী মুসলিম হলে ফিল্ড হাসপাতাল বসিয়ে কলেরা থামিয়ে ছিলেন। শিক্ষা উপমন্ত্রী বলেন, এখন সরকার আছে, সাথে আমাদের দলও আছে, আছেন অনেক দানবীর ব্যক্তিরা। সবাই করছেন, আরো করবেন। কিন্তু সেই স্বার্থপর রাজনৈতিক শক্তির দেখা নাই। মাঠ দূরের কথা ঘরে বসে কয়জনকে সাহায্য করেছেন এটি জাতির বিবেকের কাছে প্রশ্ন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

সম্পাদকঃ শারমিন আক্তার, প্রকাশকঃ মোঃ এনামুল হক, হুজাইফা এন্টারপ্রাইজ লিমিটেড কর্তৃক চৌধুরী মল ৪৩, শহীদ নজরুল ইসলাম সড়ক (হাটখোলা রোড), টিকাটুলি, ঢাকা-১২০৩ হতে প্রকাশিত। ফোন-ফ্যাক্স: ৭১২৫৩৮৬। । ই-মেইল: tatkhonik@gmail.com