সর্বশেষ সংবাদ
Home / অপরাধ / শ্রীপুরে তৃতীয় বিয়ের পর দ্বিতীয় স্ত্রীকে খুন

শ্রীপুরে তৃতীয় বিয়ের পর দ্বিতীয় স্ত্রীকে খুন

গাজীপুরে তৃতীয় বিয়ের পর দ্বিতীয় স্ত্রী চম্পা আক্তার (২৪) নামে এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে।

বুধবার দিবাগত রাতে গাজীপুর সদর উপজেলার রাজেন্দ্রপুর (পূর্ব নয়নপুর) এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত চম্পা পটুয়াখালীর গলাচিপা উপজেলার বালির হাওলা গ্রামের নুরুল ইসলাম গাজীর মেয়ে। স্বামী রফিকুল ইসলাম গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার নিজমাওনা এলাকার বাসিন্দা ইসমাইলের ছেলে।

জানা যায়, চম্পা ও তার স্বামী রফিকুল ইসলাম ওই এলাকার মনু মিয়ার বাড়িতে ভাড়া থেকে স্থানীয় এনএজেড (নাজ) পোশাক কারখানায় সুইং আপরেটর হিসেবে কাজ করতেন। সেখান থেকেই তাদের পরিচয় ও বিয়ে হয়।

নিহতের ভাই মোহাম্মদ আলম গাজী জানান, ১০ বছর আগে চম্পা ও রফিকের বিয়ে হয়। চম্পা হল রফিকের দ্বিতীয় স্ত্রী, রফিকও চম্পার দ্বিতীয় স্বামী। তাদের এ সংসারে সাত বছরের তামিম নামে এক ছেলে রয়েছে।

বনিবনা না হওয়ায় রফিকের প্রথম স্ত্রী স্বামীকে ছেড়ে বাপের বাড়ি চলে যায়।

চম্পার সঙ্গে বিয়ের বছরখানেক পর তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ দেখা দেয় এবং তারা আলাদাভাবে বসবাস শুরু করেন। ইতোমধ্যে রফিক তৃতীয় বিয়ে করে অন্যত্র বসবাস শুরু করেন। বিষয়টি চম্পা জানতেন না। রফিক মাঝেমধ্যে চম্পার ভাড়া বাড়িতে আসা-যাওয়া করতেন।

সম্প্রতি তৃতীয় বিয়ের ঘটনাটি জানাজানির পর চম্পার সঙ্গে রফিকের সম্পর্কের অবনতি দেখা দেয়। কয়েক মাস আগে চম্পা তার ছেলেসহ গাজীপুর সদর উপজেলার ভাওয়ালগড় ইউনিয়নের নয়নপুর এলাকায় মনু মিয়ার বাড়িতে ভাড়ায় ওঠেন।

মঙ্গলবার চম্পার বাসা থেকে ছেলে তামিমকে শ্রীপুরে (নানাবাড়ি) রেখে আসেন তার বাবা। বুধবার সন্ধ্যার পর রফিক আবার চম্পার বাসায় যান। ছেলেকে সঙ্গে নিয়ে না যাওয়ায় তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় চম্পার অপর ভাই স্থানীয় বাজারের কাঁচামাল ব্যবসায়ী জহিরুল গাজী তামিমের বিষয়ে জানতে চাইলে রফিক জানান তার ছেলে তামিমকে এক মাদ্রাসায় ভর্তি করে দিয়েছেন। সে সেখানেই থাকে।

পরে রাত ২টার দিকে পাশের ভাড়াটিয়া চম্পার চিৎকার শোনেন এবং রফিককে ঘর থেকে চলে যেতে দেখেন। পরে ঘরে ঢুকে চম্পার রক্তাক্ত দেহ দেখতে পান। বিষয়টি বাড়ির মালিক ও চম্পার স্বজনকে জানান তিনি।

স্থানীয় ভাওয়ালগড় ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য তরিকুল ইসলাম রিপন জানান, খবর পেয়ে রাত আড়াইটার দিকে ঘটনাস্থলে যাই। এটি ছিল উভয়ের দ্বিতীয় বিয়ে। তাদের মধ্যে বিয়ের কিছু দিন পর থেকে দাম্পত্য কলহ সৃষ্টি হয়। এ নিয়ে একাধিকবার সালিশও হয়েছে।

শ্রীপুর থানার এসআই সাইফুল ইসলাম জানান, চম্পার দেহের একাধিক স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। স্বামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

রাঙ্গাবালীতে জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণে টাকা আদায়

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার চরমোন্তাজ ইউনিয়নে জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণে টাকা আদায়ের অভিযোগ পাওয়া ...

Skip to toolbar