সর্বশেষ সংবাদ
Home / অপরাধ / থামাতে হবে এ মৃত্যু-মিছিল

থামাতে হবে এ মৃত্যু-মিছিল

সড়ক-মহাসড়কে কোনভাবেই থামানো যাচ্ছে না মৃত্যুর মিছিল। নিরাপদ সড়কের প্রতিবাদে যখন দেশজুড়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন চলছে, তারই মধ্যে গতকাল শুক্রবার দেশের ৬টি স্থানে চালকদের বেপরোয়া গাড়ি চালনায় ৮ জনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছেন অন্তত ৫৩ জন। এর মধ্যে খোদ রাজধানীতেই বাসের ধাক্কায় মারা গেছেন একজন মোটরসাইকেল আরোহী। কীভাবে হুশ ফিরবে এই ‘ঘাতক’ চালকদের- এমন প্রশ্নই করছেন সাধারণ মানুষ। তারা বলছেন, শিক্ষার্থীরা যখন চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে কিভাবে সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে হয়, কিভাবে পরীক্ষা করতে হয় কাগজপত্রের তখন কেন এই দুর্ঘটনা। সড়ক-মহাসড়কে দায়িত্ব পালন করা কর্মকর্তারা কী করছেন? যে কোন মূল্যে থামাতে হবে এই মৃত্যুর মিছিল। রাষ্ট্রকেই দায়িত্ব নিয়ে কাজ করতে হবে। ঘাতক চালকদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিয়ে অন্যদেরও শিক্ষা দিতে হবে।

রাজধানীর মগবাজারে বাসের চাপায় মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যুতে ক্ষুব্ধ জনতা বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দেয়। চালককে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করে। কুমিল্লার দাউদকান্দির শহীদনগরে রাস্তা পারাপারের সময় গৌরীপুর সুবল-আফতাব উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্র আলিফ হাসান (১৪) নিহত হয়েছে। টাঙ্গাইলের সখীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় এক স্কুল ছাত্রী নিহত হয়েছে। শরীয়তপুরে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে একজন টমটম গাড়ি চালক নিহত হয়েছেন। আর রাজধানীর অদূরে ধামরাইয়ে দুই বাসের  মুখোমুখি সংঘর্ষে মারা গেছেন তিন জন, আহত হয়েছেন ৩০ জন যাদের ৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

রাজধানীতে বাস চাপায় মটরসাইকেল চালকের মৃত্যু : প্রায় খালি রাস্তায় বেপরোয়া বাস কেড়ে নিল মোটর সাইকেল আরোহী এক যুবকের প্রাণ। গতকাল শুক্রবার জুমার নামাজের পর মগবাজারের ওয়ারলেস গেট সংলগ্ন সড়কে এ ঘটনা ঘটে। নিহত সাইফুল ইসলাম রানা (৩০) ঢাকা কমিউনিটি হাসপাতাল মগবাজারের নার্স (ব্রাদার) ছিলেন। দুর্ঘটনার পরপরই উত্তেজিত জনতা সাতক্ষীরা ও ঢাকার মধ্যে চলাচলকারী গোল্ডেন লাইন পরিবহনের বাসটিতে (ঢাকা মেট্রো ঝ ১৪-০২১৪) আগুন ধরিয়ে দেয়। চালক ইমরান সরদার (২৫) পালিয়ে যাবার সময় স্থানীয় জনতা তাকে পিটুনি দিয়ে পুলিশে হস্তান্তর করে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গোল্ডেন লাইন পরিবহনের বাসটি মগবাজার-মৌচাক ফ্লাইওভার দিয়ে নেমে মালিবাগের দিকে যাচ্ছিল। ওয়্যারলেস গেটের ঢাল দিয়ে নামার পরই বাসটি মোটরসাইকেলের পেছনে ধাক্কা দেয়। আরোহী রানা ছিটকে পড়ে গুরুতর জখম হন। এ সময় একটি রিকশাকেও ধাক্কা দেয় বাসটি। এতে রিকশার চালক ও দুই যাত্রী সামান্য আহত হন। স্থানীয় লোকজন  রানাকে তত্ক্ষণাত্ নিকটস্থ সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান। পরে সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়া হয়। বেলা সোয়া ২টার দিকে চিকিত্সক রানাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ক্ষুব্ধ জনতা বাসটি আটকে এর চালককে ধরে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। পরে বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দেয় তারা। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যেরা ঘটনাস্থলে যায়। ফায়ার সার্ভিসের কন্ট্রোল রুমের ডিউটি অফিসার তানহারুল ইসলাম জানান, ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট চেষ্টা চালিয়ে দুপুর ২টা ১২ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। অপরদিকে দুর্ঘটনার খবর পেয়ে হাসপাতালে পৌঁছান নিহতের বাবা, দুই বোন সাথী, যূথিসহ অন্যরা। তারা জানান, মগবাজার কমিউনিটি ক্লিনিকে ব্রাদার হিসেবে চাকরি করতেন রানা। বাস থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে ক্লিনিকেই গিয়েছিলেন তিনি। বরিশাল বানাড়িপাড়া উপজেলার তেঁতলা গ্রামের শাজাহান আলীর ছেলে নিহত সাইফুল ইসলাম রানা। দুই বোন ও এক ভাইয়ের মধ্যে তিনি ছিলেন সবার বড়। থাকতেন রাজধানীর  খিলগাঁওয়ের গোড়ানের হাড়ভাঙ্গা এলাকায়।

ডিএমপি রমনা বিভাগের উপ-পুলিশ মারুফ হোসেন সরদার বলেন, দুর্ঘটনার পর বাসে কারা আগুন   দিয়েছে তা  বলা যাচ্ছে না? তদন্তে করে দেখার পর বলা যাবে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, চালকের লাইসেন্স রয়েছে। তবে গাড়ির ফিটনেস যাচাই করে দেখা হচ্ছে। রমনা থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) মহিবুল্লাহ জানান, আটক চালক ইমরানের বাড়ি পিরোজপুর সদরের কুমুড়িয়ায়। চালকের সহকারী সায়মন পলাতক রয়েছে। ঘাতক বাসটি জব্দ করে থানায় নেয়া হয়েছে। মোটরসাইকেলটিও পুলিশ হেফাজতে রয়েছে।

ধামরাইয়ে দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে তিন জন নিহত : আমাদের ধামরাই (ঢাকা) সংবাদদাতা জানান, গতকাল সন্ধ্যার পর প্রায় ৩৫ জন যাত্রী নিয়ে সূর্যমুখি নামের একটি যাত্রীবাহী বাস আরিচার দিকে যাচ্ছিল। সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে বাসটি ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের জয়পুরা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা সেতু পরিবহনের অপর একটি বাসের সঙ্গে সেটির মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তিন জন মারা যান। এছাড়াও দুই বাসের আরও প্রায় ৩০ জন যাত্রী আহত হন। তাদেরকে উদ্ধার করে ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সেসহ স্থানীয় বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে পাঁচ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাদের ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

ধামরাইয় ফায়ার সার্ভিসের ওয়ার হাউজ ইন্সপেক্টর সাহেব আলী দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘খবর পেয়ে ধামরাই ফায়ার সার্ভিসের একটি দল দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করেছে।’ ধামরাই থানার এসআই জুলফিকার হায়দার দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনাস্থলেই তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে তাদের পরিচয় জানা যায়নি।

দাউদকান্দিতে সড়ক দুর্ঘটনায় স্কুল ছাত্র নিহত : আমাদের দাউদকান্দি (কুমিল্লা) সংবাদদাতা জানান, গতকাল শুক্রবার দাউদকান্দি উপজেলার শহীদনগরে রাস্তা পারাপারের সময় গৌরীপুর সুবল-আফতাব উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্র আলিফ হাসান (১৪) নিহত হয়। নিহত আলিফ হাসান একই উপজেলার আঙ্গাউড়া গ্রামের হুমায়ুন কবির এর পুত্র। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাস্তা পারাপারে সময় একটি মাইক্রোবাস দ্রুতগতিতে এসে শিক্ষার্থী আলিফ হাসানকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। শিক্ষার্থী আলিফ হাসানকে আহত অবস্থায় তাত্ক্ষণিকভাবে গৌরীপুরে অবস্থিত দাউদকান্দি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিত্সক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

সখীপুরে স্কুল ছাত্রী নিহত : আমাদের সখীপুর (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা জানান, গতকাল সকালে সখীপুর উপজেলায় ট্রাকের চাপায় এক স্কুল ছাত্রী নিহত হয়েছে। তার নাম সাদিয়া আক্তার (১৫)। সে উপজেলার বড়চওনা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী ও বেলতলী গ্রামের আজহারুল ইসলাম এবং রেখা বেগমের মেয়ে। এদিকে সাদিয়ার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে সহপাঠীসহ বিদ্যালয়ের শত শত শিক্ষার্থী সড়কে টায়ার জ্বালিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে।

সখীপুর থানার ওসি এসএম তুহীন আলী বলেন, অবরোধস্থলে উপস্থিত হয়ে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থী ও জনতার সঙ্গে আলোচনা করে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করা হয়েছে। ঘাতক ট্রাকসহ চালককে আটক করা হয়েছে।

শরীয়তপুরে টমটম চালক নিহত : আমাদের গোসাইরহাট (শরীয়তপুর) সংবাদদাতা জানান, গতকাল গোসাইরহাটে গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে একজন টমটম গাড়ি চালক নিহত হয়েছেন। তিনি হলেন নাজিম।

শেরপুরে ইউপি মোটরবাইক চালক নিহত, ইউপি চেয়ারম্যান আহত : আমাদের শ্রীবরদী (শেরপুর) সংবাদদাতা জানান, গত বৃহস্পতিবার রাতে শ্রীবরদীতে মোটর সাইকেল ও ট্রলির সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। নিহত ব্যক্তি হলেন মোটর সাইকেল চালক রবিউল (২৫)। দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন ভারপ্রাপ্ত ইউপি চেয়ারম্যানসহ তিনজন।

নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আইল্যান্ডে বাস, আহত ২০ : আমাদের চান্দিনা ও বুড়িচং (কুমিল্লা) সংবাদদাতা জানান, গত বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের চান্দিনায় চলন্ত বাসে চালক সিগারেট জ্বালাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আইল্যান্ডের উপর উল্টে পড়ে। এতে ২০ যাত্রী আহত হয়েছেন। দুর্ঘটনার পর চালক ও হেলপার পালিয়ে গেছে।

হাইওয়ে পুলিশ ময়নামতি ফাঁড়ির এসআই মেহেদী হাসান খান জানান, দুর্ঘটনার সময় সিগারেট জ্বালানোর বিষয়টি যাত্রীদের অনেকের কাছ থেকেই শুনেছি। বাসটি উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

x

Check Also

রাঙ্গাবালীতে জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণে টাকা আদায়

পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার চরমোন্তাজ ইউনিয়নে জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণে টাকা আদায়ের অভিযোগ পাওয়া ...

Skip to toolbar